সেন্টমার্টিনে স্কুল ছাত্রীর বাল্য বিয়ে বন্ধ করলেন-ইউএনও

বুধবার, ২৯ এপ্রিল ২০২০ | ২:২৪ অপরাহ্ণ | 50 বার

সেন্টমার্টিনে স্কুল ছাত্রীর বাল্য বিয়ে বন্ধ করলেন-ইউএনও

টেকনাফের সেন্টমাটিনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেল স্কুল পড়ুয়া নবম শ্রেণির এক ছাত্রী।

মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার সেন্টমাটিন ইউনিয়নের পশ্চিমপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়,পশ্চিম পাড়া গ্রামে ওই স্কুলপড়ুয়া ছাত্রীর বাড়িতে চলছিল বিয়ে আয়োজন। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলামের নিদের্শে সেন্টমাটিন ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমদ, বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শাহ জালাল সরকার ও কয়েকজন জনপ্রতিনিধির নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে ছাত্রীর বাড়িতে উপস্থিত হয়ে বাল্যবিবাহটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমদ বলেন, বিয়ের জন্য তাদের সব আযোজন চলছিল ঘরোয়া ভাবে। তারা প্রতিবেশী ও একই গ্রামের বাসিন্দা। দেশের করোনা ভাইরাস আতঙ্কে লকডাউন চলছে জেলাব্যাপী। তার মধ্যে এ অবস্থায় বিয়ের আয়োজন কোনোভাবে সম্ভব নয়।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন, স্থানীয় লোকজনের কাছ থেকে তিনি জানতে পারেন, স্থানীয় এক বাসিন্দার নবম শ্রেণিতে অধ্যায়নরত এক ছাত্রীর বিয়ের আয়োজন করা হয়েছে। একই এলাকার এক ছেলের সঙ্গে। খবর পেয়ে তিনি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমদ ও স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শাহ জালাল সরকারকে বিয়ে বাড়িতে পাঠান। তাঁদের দেখে মেয়ের মা-বাবা, ছেলে, ও তার মা-বাবসহ অন্যরা বাড়ি থেকে পালিয়ে যান। পরে ছাত্রীর বাবাকে ১৮ বছর আগে তাকে বিয়ে দেবে না মর্মে লিখিত মুচলেকা দিয়ে ছাড়া পান। তবে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমদকে এ বিষয়টি তদারকি করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

দৈনিক দৈনন্দিন এ প্রকাশিত কোন ছবি,সংবাদ,তথ্য,অডিও,ভিডিও কপিরাইট আইনে অনুমতি ব্যতিরেখে ব্যবহার করা যাবে না ।

Copyright @ 2020

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!