এইমাত্র পাওয়া

x

শাহাজাহান চেয়ারম্যানের বাড়িতে থেকে ৫০ হাজার ইয়াবা ও ৪টি অস্ত্র উদ্ধার

সোমবার, ২৯ জুলাই ২০১৯ | ৫:৩৮ অপরাহ্ণ | 206 বার

শাহাজাহান চেয়ারম্যানের বাড়িতে থেকে ৫০ হাজার ইয়াবা ও ৪টি অস্ত্র উদ্ধার

টেকনাফের ইয়াবাকারবারি ও টেকনাফ সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো: শাহাজাহানের বাড়ি থেকে ইয়াবা এবং অস্ত্র উদ্ধার করেছে টেকনাফ থানা পুলিশ। ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় যশোরের বেনাপোল সীমান্তে আটক হওয়ার পর টেকনাফ থানা পুলিশ তার দেয়া তথ্যে’র ভিত্তিতে অভিযানে যায়। এসময় ৫০ হাজার ইয়াবা, ৪টি অস্ত্র ও ২৫ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

রোববার (২৮ জুলাই) বিকেলে টেকনাফের লেঙ্গুরবীলস্থ শাহজাহানের নিজ বাসা থেকে এসব অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।
টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ জানান, তাকে হেফাজতে নেয়ার পর জিজ্ঞাসাবাদে তার দেয়া তথ্যে’র ভিত্তিতে নিজ বাসা থেকে এসব অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও জানান, নিজ বাসা থেকে শাহাজাহান নিজেই এসব অস্ত্র ও ইয়াবা বের করে দেন। পরে তা সাক্ষীদের সামনে জব্দ করা হয়। তার দেয়া তথ্য অনুযায়ী পিতা ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আহমদও এসব মাদক ও অস্ত্রের সঙ্গে জড়িত। তাই তাদের দুইজনকে আসামী করে পৃথক দুইটি মামলা দায়ের করা করা হবে।

পুলিশ জানায়, এর আগেও মো. শাহাজাহানের বিরুদ্ধে মাদক ও অস্ত্র আইনে ৫টি মামলা ছিল। এ দুইটি সহ সাতটি হবে।
উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টার দিকে ভারতে পালিয়ে যাওয়অর সময় বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ টেকনাফের বহুল আলোচিত ইয়াবাকারবারি শাহাজাহানকে আটক করে। পরে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ তথ্য যাচাই করে তার বিরুদ্ধে একাধিক কালো তালিকা নাম থাকায় তাকে গ্রেফতার করে পোর্টথানা পুলিশে তুলে দেওয়া হয়। তার বিরুদ্ধে গোয়েন্দা তথ্য, পুলিশের প্রতিবেদন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর তালিকাসহ প্রধানমন্ত্রী দপ্তরের তালিকায় এটাই স্পষ্ট যে, টেকনাফে ইয়াবা ব্যবসা নিয়ন্ত্রণে পিতা-পুত্রের সিন্ডিকেটটি অত্যন্ত শক্তিশালী। ১৬ ফেব্রুয়ারি টেকনাফে আত্মসমর্পনকারি ১০২ জনের সাথে আত্মসমর্পন করেন এক পুত্র দিদার আহমদ।

মাদকদ্রব্য পাচার সংক্রান্ত প্রতিবেদনে ইয়াবার গডফাদার জাফর আহমদ ও তার তিন পুত্রের নাম আসলেও তার বড় পুত্র মোস্তাক আহমদ নিখোঁজ রয়েছেন আড়াই বছরের বেশি সময় ধরে। তিনি কোথায় তা নিশ্চিত করা যায়নি বা কেন নিখোঁজ তাও নিশ্চিত নয়।
সম্প্রতি ইয়াবার বিরুদ্ধে অভিযান কঠোর হলে পিতা জাফর আহমদ ও ছেলে মো. শাহজাহান আত্মগোপনে চলে যান। এর মধ্যে তাদের লেঙ্গুর বিলস্থ বাড়িটি অজ্ঞাত হামলায় ভাংচুরও হয়েছে। আইন শৃঙ্খলা বাহিনী তারা যাতে বিদেশে পালিয়ে যেতে না পারে তার জন্য রের্ড এর্লাট জারি করে।

দৈনিক দৈনন্দিন এ প্রকাশিত কোন ছবি,সংবাদ,তথ্য,অডিও,ভিডিও কপিরাইট আইনে অনুমতি ব্যতিরেখে ব্যবহার করা যাবে না ।

Copyright @ 2019

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!