এইমাত্র পাওয়া

x

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সক্রিয় ইয়াবা কারবারি

সোমবার, ২৯ এপ্রিল ২০১৯ | ১২:০৮ অপরাহ্ণ | 149 বার

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সক্রিয় ইয়াবা কারবারি

উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প কে ঘিরে ইয়াবা কারবারিরা সক্রিয় হয়ে উঠেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসব ক্যাম্পে রয়েছে শতাধিক ইয়াবা কারবারি। এদের মালবহনের জন্য রোহিঙ্গা ও স্থানীয়দের নিয়োগ দিয়েছেন বলে সংশ্লিষ্ট সুত্র নিশ্চিত করেছেন।

উখিয়ার বিভিন্ন সীমান্ত পয়েন্ট দিয়ে ঢুকছে ইয়াবা। কোন অবস্থায় বন্ধ করা যাচ্ছে না। সীমান্ত রক্ষী বিজিবি, পুলিশ ওর্ র্যাবের হাতে বন্দুক যুদ্ধের ইয়াবা কারবারি নিহত হচ্ছেন। তবুও ভয় পাচ্ছে না ইয়াবা কারবারিরা। সম্প্রতি উখিয়ার সীমান্তবর্তী পালংখালি ইউনিয়নের বিজিবির সাথে বন্দুকযুদ্ধে চার রোহিঙ্গা ইয়াবাকারবারি নিহত হয়েছেন। স্থানীয় সচেতন মহল মনে করছেন, স্থানীয়দের চাইতে রোহিঙ্গারা এ ব্যবসায় জড়িত বেশি। ক্যাম্প গুলোতে রাতের আঁধারে অচেনা মানুষের আনাগোনা বেড়ে যায় ।

মান্তবর্তী টেকনাফে প্রতিনিয়ত পুলিশের বন্দুক যুদ্ধে ইয়াবা কারবারি নিহত হন। এগুলোর কারনে উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প গুলোতে আশ্রয় নেয়। একারণে বন্ধ হচ্ছে না ইয়াবা ব্যবসা। গত দুই দিনে উখিয়া থানা পুলিশ ও র‌্যাব -১৫ পৃথক অভিযান চালিয়ে ৫ লাখ ৫০ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করেছে। এসময় জড়িত থাকার অভিযোগে এক গৃহবধূ আটক করতে সক্ষম হয়।

নিবার রাতে র‌্যাব -১৫ এর ক্যাম্প কমান্ডার মেজর মেহেদী হাসানের নেতৃত্ব কক্সবাজার শহর থেকে দুই হাজার পিস ইয়াবা সহ তিনজনকে আটক করেছে। গত শুক্রবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে ইয়াবার একটি বড় চালান বালুখালী ক্যাম্পে ঢুকার পথে ইয়াবা কারবারিদের ধাওয়া করে উখিয়া থানা পুলিশ ১০ কোটি টাকা মূল্যের ৩ লক্ষ ৫০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে। গত শনিবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে র‌্যাব টেকনাফের ইসলাবাদ এলাকায় অভিযান চালিয়ে দুই লক্ষ পিস ইয়াবা সহ এক নারীকে গ্রেফতার করেছে।

উখিয়ার সীমান্তবর্তী পালংখালি ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান এম গফুর উদ্দিন বলেন, সীমান্ত এলাকায় ইয়াবা পাচার বন্ধ করতে হল রোহিঙ্গাদের নিয়ন্ত্রণ করতে হবে । ক্যাম্প গুলো ইয়াবা মজুদের নিরাপদ ঘাঁটি।

উখিয়া থানার ওসি আবুল খায়ের বলেন ইয়াবা উদ্ধারের সত্যতা স্বীকার করে বলেন এ ব্যাপারে মাদক দ্রব্য আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে। আসামীদের ধরতে পুুুলিশী অভিযান চলছে।

র‌্যাব-১৫টেকনাফের ইনচার্জ মির্জা শাহেদ মাহতাবের নেতৃত্ব একটি দল টেকনাফের ইসলামাবাদ এলাকায় অভিযান চালিয়ে দুই লক্ষ পিস ইয়াবা সহ সাবেকুর নাহার নামের এক নারীকে গ্রেফতার করেন।

র‌্যাব -১৫ এর ক্যাম্প কমান্ডার মেজর মেহেদী হাসান বলেন মাদক ব্যাপারে কোন আপোষ নেই। প্রতিনিয়ত ইয়াবা সহ পাচারকারীদের আটক করতে সক্ষম হয়। উখিয়া সার্কেল নিহাদ আদনান তাহিয়ান বলেন মাদক নির্মুলে পুলিশ তৎপর রয়েছে। এ ব্যাপারে সংবাদ কর্মীদের সহযোগিতা চেয়েছেন।

আবরারের মৃত্যু আমাদের অনেক কিছু শিখিয়ে দিয়ে গেল – ইশতিয়াক আহমেদ
দৈনিক দৈনন্দিন এ প্রকাশিত কোন ছবি,সংবাদ,তথ্য,অডিও,ভিডিও কপিরাইট আইনে অনুমতি ব্যতিরেখে ব্যবহার করা যাবে না ।

Copyright @ 2019

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!