যে পথ দিয়ে আঘাত হানবে বুলবুল

শুক্রবার, ০৮ নভেম্বর ২০১৯ | ১১:২৮ অপরাহ্ণ | 94 বার

যে পথ দিয়ে আঘাত হানবে বুলবুল

বাংলাদেশের দিকে ১৫ থেকে ২০ কিলোমিটার বেগে ধেয়ে আসছে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় বুলবুল। এর প্রভাবে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হচ্ছে। এর প্রবণতা আরও বৃদ্ধি পেতে পারে।

ইতোমধ্যে চার নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত সরিয়ে মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরে সাত নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বন্দর থেকে লঞ্চ ও জাহাজ চলাচল। অন্যদিকে, চট্টগ্রামে ছয় নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। এছাড়া কক্সবাজারে এখনো চার নম্বর সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

বিভিন্ন আন্তর্জাতিক আবহাওয়ার ওয়েবসাইটের দেওয়া তথ্য মতে, শনিবার (৯ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত ৯টার মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের কুচ বিহার জেলার সুন্দরবন হয়ে বাংলাদেশের সুন্দরবনে আঘাত হানবে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল। এ সময় এর গতিবেগ থাকতে পারে ঘণ্টায় ৩০ থেকে ৩৫ কিলোমিটার। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৭০ কিলোমিটারের মধ্যে ১০০ থেকে ১৪০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো বাতাস বইতে পারে।

শনিবার মধ্যরাতে ঘূর্ণিঝড়টি ধীরে ধীরে মংলা বাগেরহাট ও খুলনার মাঝামাঝিতে গিয়ে ক্রমশই দুর্বল হয়ে নিম্নচাপে পরিণত হবে। এ সময় উপকূলীয় অঞ্চলগুলোতে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিসহ ঝড়ো বাতাস বইতে পারে।

আবহাওয়া অফিস বলছে, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে উপকূলীয় জেলা চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর, বরগুনা, ভোলা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলোর নিম্নাঞ্চলে স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৫ থেকে ৭ ফুট অধিক উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে। এ জন্য উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দর থেকে ৬২০ কিলোমিটার, কক্সবাজার সমুদ্র বন্দর থেকে ৫৮৫ কিলোমিটার, মংলা সমুদ্র বন্দর থেকে ৪৯৫ কিলোমিটার এবং পায়রা সমুদ্র বন্দর থেকে ৪৯০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছে।

দৈনিক দৈনন্দিন এ প্রকাশিত কোন ছবি,সংবাদ,তথ্য,অডিও,ভিডিও কপিরাইট আইনে অনুমতি ব্যতিরেখে ব্যবহার করা যাবে না ।

Copyright @ 2019

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!