প্যারাবন কেটে বাকঁখালী নদীর বিশাল অংশ দখল

বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯ | ১১:১৮ অপরাহ্ণ | 324 বার

প্যারাবন কেটে বাকঁখালী নদীর বিশাল অংশ দখল

কক্সবাজার শহরের কস্তুরাঘাট কেন্দ্রীয় শশ্মানের রাস্তার বাম পাশে প্যারাবন কেটে বাকঁখালী নদীর বিশাল একটি অংশ দখল করে নিচ্ছে একটি প্রভাশালী চক্র। ইতি মধ্যে দখলদাবাজরা সব প্যারাবন কেটে টিন দিয়ে ঘেরাও করে রেখেছে অংশটি। দীর্ঘদিন এ দখল প্রক্রিয়া চলতে থাকলেও নীরব রয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কস্তুরাঘাট শশ্মানের রাস্তার পাশে প্রায় ১০ একর জায়গা টিন দিয়ে ঘেরাও করে রাখা হয়েছে। ওই জায়গায় গড়ে তোলা হয়েছে ঘর-বাড়ি। এর পাশে প্যারাবন কেটে আরো একটি জমি ভরাট করে রাখা হয়েছে। ছোট ছোট পিলার ও টিন দিয়ে জায়গা সনাক্ত করে রাখা হয়েছে। দখলে নেয়া অংশে আবার মাটি দিয়ে ভরাট করা হচ্ছে।

স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, গত ২ বছর যাবত ওই এলাকায় চলছে অবৈধ দখল প্রক্রিয়া। স্থানীয় কিছু দখলবাজ প্রভাবশালী ব্যক্তি সরকার দলের লোক দাবী করে প্যারাবন কেটে এ অবৈধ দখল চালাচ্ছে। তারা প্যারাবন কেটে লাকড়ি হিসেবে পুড়ে ফেলে। আর ওই জায়গা দখল করে ছোট ছোট পিলার দিয়ে সনাক্ত করে রাখেন। পরে রোহিঙ্গাসহ বিভিন্ন লোকজনকে বিক্রি করে। ক্রেতাদের তারা ভূয়া কাগজ-পত্রও দিচ্ছে। আর এসব জায়গা গন্ডাপ্রতি বিক্রি করছে ১ লাখ টাকা পর্যন্ত।

এলাকাবাসী জানায় প্যারাবন কাটা, দখল প্রক্রিয়ায় নেতৃত্ব রয়েছেন দুই যুবক। তাদের নেতৃত্বেই প্যারাবন কাটা, দখল ও বিক্রির কাজটি করা হচ্ছে। তার এই অবৈধ কাজে সহযোগিতা করে পরিবেশ অধিদপ্তর ও বন বিভাগের কিছু লোকজন।

পরিবেশ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. নুরুল আমিন বলেন, দখলের বিষয়টি তিনি জানেন না। এটা আসলেই দুঃখ জনক বিষয়। আমাদের জনবলের তুলনায় কাজের পরিধি বেশি হওয়ায় সব বিষয়ে খবর রাখা সম্ভব হয় না। প্যারাবন কাটা হলে ওইটা বন বিভাগ দেখবে আর জমি দখল করলে সেটা জেলা প্রশাসন দেখবে বলে জানান পরিবেশের এই কর্মকর্তা।

দৈনিক দৈনন্দিন এ প্রকাশিত কোন ছবি,সংবাদ,তথ্য,অডিও,ভিডিও কপিরাইট আইনে অনুমতি ব্যতিরেখে ব্যবহার করা যাবে না ।

Copyright @ 2020

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!