নানা সমস্যায় জর্জরিত কক্সবাজার পৌরসভা

বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯ | ৫:৩০ অপরাহ্ণ | 341 বার

নানা সমস্যায় জর্জরিত কক্সবাজার পৌরসভা

কক্সবাজার পৌরসভা এখন নানা সমস্যায় জর্জরিত। পরিকল্পিত আধুনিক নগর হিসেবে গড়ে তোলার মিশনে ব্যর্থ হচ্ছে কক্সবাজার পৌর কর্তৃপক্ষ। পৌর এলাকার সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা, অপর্যাপ্ত সড়ক বাতি ব্যবস্থা, পানি নিষ্কাশনের অপ্রতুল ড্রেনেজ ব্যবস্থা, অবৈধ ফুটপাত দখল, সঠিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা না থাকাসহ বিভিন্ন কারণে সরকারের মিশন কক্সবাজার পৌরসভার পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হচ্ছে না। পৌর কর্তৃপক্ষের পরিকল্পিত এসব মিশনে ব্যর্থ হওয়ায় জনসাধারণ পাচ্ছেন না প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা ও বঞ্চিত হচ্ছেন প্রাপ্ত মৌলিক চাহিদা থেকে।

এক দিকে বৃক্ষ নিধন ও প্রাকৃতিক কারণে সৈকতের ঝাউবাগান বিলীন হওয়ার উপক্রম হলেও বৃক্ষরক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নেওয়ায় প্রধান মিশন সৌন্দর্য বর্ধনে বৃক্ষরোপণের কার্যক্রমও পিছিয়ে পড়েছে পর্যটন নগরীর কক্সবাজার পৌর শহর। অন্যদিকে কক্সবাজার পৌর শহরের অভ্যন্তরীণ সড়ক ও উপ-সড়কগুলো অপরিকল্পিতভাবে নির্মাণ করার উদ্যোগ নেওয়ায় সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার পরিকল্পনার মিশনও বাস্তবায়ন করা যাচ্ছে না।

সচেতন মহলের অভিযোগ, পৌর কর্তৃপক্ষের মিশন হিসেবে চিহ্নিত পানি নিষ্কাশনের জন্য ড্রেনেজ ব্যবস্থা পুরো শহর জুড়ে অত্যান্ত নাজুক। সামান্য বৃষ্টি হলেই বয়ে যায় বন্যা। বৃষ্টির সময় পানি ড্রেনের চেয়ে রাস্তায় বেশি স্থায়ী থাকে। ড্রেনেজ ব্যবস্থা হিসেবে অতীতের চেয়ে বর্তমানে যেসব কালভার্ট নির্মাণ করা হচ্ছে তা অত্যন্ত সরু। আর অভ্যন্তরীণ সড়ক-উপসড়কগুলো পাহাড়ের টিলার মতোই। অর্ধেক ঢালাই করা আর অর্ধেক নিচু অবস্থায় খানা-খন্দকে ভরপুর। অন্যদিকে সড়ক বাতির ব্যবস্থাগুলোরও নাজুক হয়ে পড়েছে। বাতাস আসার আগেই বাতিগুলো নিভে যায়। পৌর শহরে এমনিতে ফুটপাতের ব্যবস্থা নেই বললেই চলে। যা আছে তা দখলে চলে গেছে মৌসুমী হকার ও বিল্ডিং মালিকদের দখলে। এসব উচ্ছেদের কোন ব্যবস্থা করছে না পৌর কর্তৃপক্ষ। পর্যটন নগরী হিসেবে পৌরসভার মধ্যে কক্সবাজার পৌরসভা শীর্ষে অবস্থান করলেও সব মিলিয়ে মনে হয় পৌরসভার মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নের মিশনে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনে সম্পূর্ণ পিছিয়ে পড়েছে।

পরিকল্পিত আধুনিক নগরী হিসেবে গড়ে তোলার জন্য পরিবহন ব্যবস্থাপনা, সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা, সড়কবাতিসহ ফুটপাত স্থাপন, পানি নিস্কাশনে ড্রেনেজ ব্যবস্থা সুষ্ঠু ও পরিকল্পিত না হওয়ায় মিশন বাস্তবায়নে ব্যর্থতার মূল কারণ হিসেবে দেখছেন সচেতন মহল।

সরজমিনে ঘুরে দেখা যায়, পৌর এলাকার অভ্যন্তরীণ সড়ক-উপসড়কগুলোর অবস্থা অত্যন্ত নাজুক। প্রধান সড়ক টেকপাড়া, বার্মিজ মার্কেট, হাসপাতাল সড়ক, গোলদিঘীর পাড়, বাহারছড়া, হোটেল-মোটেল জোন এলাকাসহ কয়েকশ সড়ক নির্মিত হয়েছে অপরিকল্পিতভাবে। এভাবে নির্মাণ করার কারণে সড়কগুলো উচু-নিচু হওয়ায় পানি জমে কার্পেটিং উঠে গেছে। শহরের পানি চলাচলের ড্রেনগুলো ময়লা-আবর্জনায় পরিপূর্ণ হয়ে উপড়ে পড়ছে। অন্যদিকে বৌদ্ধ মন্দির সড়ক, বাজারঘাটা, বড় বাজার এলাকা, গোলদিঘীর পাড়, বার্মিজ মার্কেট এলাকা, পেশকার পাড়া, হাঙ্গরপাড়া, নুর পাড়া, টেকপাড়া, নুনিয়াছড়া, ৬নং এলাকাসহ শহরের প্রায় এলাকায় পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় বৃষ্টি পানিতে সামান্য বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা দেখা দেয়।

বার্মিজ এলাকার বাসিন্দা ফাহিম, বৌদ্ধ মন্দির সড়কের মোঃ আবুল কাশেম, ঘোনার পাড়ার সবুজ শীলসহ অনেকে ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, সরকারি বিধি মোতাবেক কক্সবাজার পৌরসভাকে আধুনিক নগরী গড়ে তুলতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ কক্সবাজার পৌর কর্তৃপক্ষ। বর্তমানে পৌর শহরে ভূমি ব্যবহার পরিকল্পনা নাই বললেই চলে। অবাধে দখল করা হচ্ছে পৌরসভার ড্রেনগুলো। যার কারণে নাজুক হয়ে পড়েছে শহরের ড্রেনেজ ব্যবস্থা। পুরো শহর জুড়ে ফুটপাত থাকলেও তা মাটির নিচে চাপা পড়েছে। পর্যাপ্ত সড়ক বাতি না থাকায় সন্ধার পর থেকে নেমে আসে ঘনঘনে অন্ধকার। গভীর নলকূপ স্থাপনের মাধ্যমে আয়রন ও আর্সেনিকমুক্ত পানির সরবরাহের কথা থাকলেও পৌরসভা থেকে যে পানির ব্যবস্থা করা হচ্ছে তাও দুর্গন্ধ ও ময়লাযুক্ত। সব মিলিয়ে আধুনিক পরিকল্পিত নগরী গড়ে তোলার মিশনে বার বার ব্যর্থ হচ্ছে পৌর কর্তৃপক্ষ।

পৌরবাসীর দাবি, বর্ষা মৌসুম শেষ হয়ে যাওয়ার পরে ড্রেনেজ ব্যবস্থা সচল করা খুবই প্রয়োজন। শহরের প্রধান সড়কে এমনিতে কোন ধরণের ড্রেন নাই। তার উপর যা ড্রেন আছে তা মৌসুমী হকারদের দখলে রয়েছে শহরের সড়ক- উপসড়ক। অনতি বিলম্বে এসব সড়ক-উপসড়ক দখল মুক্ত করা প্রয়োজন হয়ে পড়েছে। শহরে প্রধান সড়কের দুই পাশে নতুন করে ফুটপাত স্থাপনাও খুবই জরুরি। রাস্তা-কালভার্ট নির্মাণের এগুলো যাতে সরু করে নির্মাণ করা না হয় সেদিকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নজর দেয়া প্রয়োজন। কক্সবাজার শহর পরিকল্পিত আধুনিক পৌর শহর হিসেবে গড়ে তোলার জন্য সর্বক্ষেত্রে পরিকল্পিত ব্যবস্থাপনা একান্ত জরুরি। তা না হলে পৌর কর্তৃপক্ষের আধুনিক পরিকল্পিত পৌর শহর গড়ে তোলা ভেস্তে যাবে ও সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা ব্যাহত হবে।

এ ব্যাপারে কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মুজিবুর রহমান এর বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

দৈনিক দৈনন্দিন এ প্রকাশিত কোন ছবি,সংবাদ,তথ্য,অডিও,ভিডিও কপিরাইট আইনে অনুমতি ব্যতিরেখে ব্যবহার করা যাবে না ।

Copyright @ 2019

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!