করোনায় কক্সবাজারের সাংবাদিক আব্দুল মোনায়েম খান মারা গেলেন

রবিবার, ০৭ জুন ২০২০ | ৪:৫৭ অপরাহ্ণ | 238 বার

করোনায় কক্সবাজারের সাংবাদিক আব্দুল মোনায়েম খান মারা গেলেন

করোনা আক্রান্ত হয়ে অন্যান্য পেশার পাশাপাশি কক্সবাজারে প্রথম একজন সাংবাদিক মারা গেলেন। রোববার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দ্য ডেইলি ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেসের কক্সবাজার প্রতিনিধি আবদুল মোনায়েম খান করোনার কাছে হার মেনে না ফেরার দেশে চলে গেলেন। তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে কক্সবাজারের সাংবাদিক সমাজে।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ডেইলি ফিনেন্সিয়াল এক্সপ্রেস এর কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি, সিনিয়র সাংবাদিক আবদুল মোনায়েম খান ৭ জুন বেলা আড়াইটার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউ-তে নেয়ার পর পরই তিনি শেষ নিঃস্বাস ত্যাগ করেন। বিষয়টি আবদুল মোনায়েম খানের সাথে থাকা তার সহধর্মিণীর ভাই জয়নাল আবেদীন গণমাধ্যম কে নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ডেইলি ফিনেন্সিয়াল এক্সপ্রেস এর কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি, সিনিয়র সাংবাদিক আবদুল মোনায়েম খানের অবস্থা খুবই সংকটাপন্ন ছিলো। তাঁর শরীরে অক্সিজেন সিসুরেশনের মাত্রা ৬০-৪০ এ উঠা নামা করছিলো। যা সুস্থ মানুষের ক্ষেত্রে স্বাভাবিকভাবে ৯৩ দরকার।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের করোনা ওয়ার্ডের রেড জোনে চিকিৎসাধীন থাকা আবদুল মোনায়েম খানের অবস্থার গুরতর অবনতি হয় রোববার ৭জুন ভোর থেকে। পরে কক্সবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাসিরের সহায়তায় একই হাসপাতালে তার জন্য আইসিইউ এর ব্যবস্থা করে রোববার বেলা ২টার পর তাকে আইসিইউ-তে নেওয়া হয়। আইসিইউ-তে নেওয়ার পর পরই আবদুল মোনায়েম খান সবাইকে শোকের সাগরে ভাসিয়ে না ফেরার দেশে চলে যান বলে তার দীর্ঘদিনের সহকর্মী ও কক্সবাজার প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহবুবুর রহমান জানিয়েছেন।

সিনিয়র সাংবাদিক আবদুল মোনায়েম খান (৫৪) কক্সবাজার শহরের তারাবনিয়ার ছরা কবরস্থান রোডের মরহুম কানুনগো বদিউল আলমের জ্যেষ্ঠ পুত্র।

সিনিয়র সাংবাদিক আবদুল মোনায়েম খান গত ২৩ মে থেকে প্রচন্ড জ্বরে ভুগছিলেন। গত ২৬ মে তার ও তার সন্তান, কক্সবাজার সিটি কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র মোহাইমেন এর স্যাম্পল টেস্টে দেওয়া হয়। গত ৩১ মে আবদুল মোনায়েম খান ও সন্তান মোহাইমেন এর, ‘পজেটিভ’ রিপোর্ট আসে। ১ জুন রাতে আবদুল মোনায়েম খানকে উখিয়া SARI Isolation & treatment centre এ ভর্তি করা হয়। পরে চিকিৎসকদের পরামর্শে গত ৩ জুন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে তাকে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছিলো।

কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ও কক্সবাজার প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের চৌধুরী বলেন, করুনার কাছে হার মেনে কক্সবাজারে সাংবাদিক সমাজকে শোকের সাগরে ভাসিয়ে চলে গেলেন না ফেরার দেশে। কক্সবাজারে এই প্রথম কোন আক্রান্ত হয়ে কোন সাংবাদিক মারা গেলেন।

সাংবাদিক মোনায়েম খান, বাংলাদেশ বেতার, স্থানীয় পত্রিকা, দ্য ডেইলি স্টার, দ্য ডেইলি সান সহ বেশ কিছু গণমাধ্যমে কাজ করেছে। সর্বশেষ দ্য ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেসের কক্সবাজার প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত ছিলেন। শুধু কক্সবাজার নয় বৃহত্তর চট্টগ্রামে করুণায় আক্রান্ত হয়ে এই প্রথম বারের মতো কোনো সাংবাদিক মারা গেলেন।

তার মৃত্যুর খবরটি ছড়িয়ে পড়লে সাংবাদিক সমাজের শোকের ছায়া নেমে আসে। তার মৃত্যুতে পৃথকভাবে শোক ও শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন, কক্সবাজার প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. আবু তাহের, কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জাহেদ সরওয়ার সোহেল, চ্যানেল আইয়ের জেলা প্রতিনিধি সরওয়ার আজম মানিক, দৈনিক দৈনন্দিন এর প্রধান সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম, কক্সবাজার ইলেকট্রনিক মিডিয়া জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি ও দৈনিক কক্সবাজার এর বার্তা প্রধান মো. নজিবুল ইসলাম সহ আরো অনেকেই।

দৈনিক দৈনন্দিন এ প্রকাশিত কোন ছবি,সংবাদ,তথ্য,অডিও,ভিডিও কপিরাইট আইনে অনুমতি ব্যতিরেখে ব্যবহার করা যাবে না ।

Copyright @ 2020

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!