কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পকেটমারকে পুলিশে দিলো জনতা : জানেন না ওসি!

শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯ | ১২:৫০ পূর্বাহ্ণ | 223 বার

কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পকেটমারকে পুলিশে দিলো জনতা : জানেন না ওসি!

কক্সবাজার সদর হাসপাতালের বহি:বিভাগে লাইনে দাঁড়ানো রোগীর পকেট থেকে মোবাইল হাতিয়ে নেয়ার সময় হাতেনাতে এক পেশাদার পকেটমারকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে জনতা। সদর থানায় কর্তব্যরত ডিউটি অফিসারের দেয়া তথ্য মতে জনতার হাতে আটক ব্যক্তিকে থানা হেফাজতে নেন পুলিশ। কিন্তু পকেটমারকে থানায় নিয়ে আসার বিষয়ে কিছুই জানেন না বলে জানিয়েছেন কক্সবাজার সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে জেলা সদর হাসপাতালের বহি বিভাগ থেকে তাকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে জনতা।
আটক পকেটমার আবদুল কাদের (৪০) উখিয়া উপজেলার মরিচ্যা এলাকার আবদু শুক্কুরের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাদ দিয়ে পুলিশ জানান, ওই পকেটমার চিকিৎসকের সাক্ষাতের জন্য লাইনে দাঁড়ানো এক রোগীর পকেট থেকে মোবাইল ফোন হাতিয়ে নেন। বিষয়টি সেখানে অবস্থানরতদের নজরে আসার সাথে সাথে পকেটমারকে ধরে হাসপাতালে আগত জনতা উত্তম-মধ্যম দিয়ে হাসপাতাল পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন। পরে কক্সবাজার সদর মডেল থানার এএসআই আবছারের নেতৃত্বে একদল পুলিশ গিয়ে ওই পকেটমারকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

কক্সবাজার সদর থানার এএসআই মো. আফসার উদ্দিন বলেন, “ আমাকে থানার কর্তবরত ডিউটি অফিসার ফোন করে জানান যে, জেলা সদর হাসপাতালে একজন পকেটমারকে আটক করে রাখা হয়েছে। এমন খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে ওই পকেটমারকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। পকেটমারসহ অন্য যে কোন আসামী আটকের বিষয়ে আপনার ওসি স্যার অবগত করেন কি না এমন প্রশ্নে জবাবে তিনি বলেন, আমি ডিউটি অফিসারের নির্দেশে হাসপাতালে গিয়ে তাকে আটক করে থানা হেফাজতে দিয়েছি। সাধারণত ওসি স্যারকে জানানোর কাজ হচ্ছে থানার ডিউটি অফিসারের। তবে আমি জানাইনি।

কক্সবাজার সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফরিদ উদ্দিন খন্দকার বলেন, পকেটমার আটকের বিষয়টি আমি জানি না। তবে খোঁজ নিয়ে বিস্তারিত জেনে আপনাদের জানানো হবে।

দৈনিক দৈনন্দিন এ প্রকাশিত কোন ছবি,সংবাদ,তথ্য,অডিও,ভিডিও কপিরাইট আইনে অনুমতি ব্যতিরেখে ব্যবহার করা যাবে না ।

Copyright @ 2019

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!