এইমাত্র পাওয়া

x

জেলার ৪ উপজেলায় উপ-নির্বাচন

কক্সবাজারে ২৬ জনের মনোনয়ন পত্র জমা

সোমবার, ০১ জুলাই ২০১৯ | ৬:১৮ অপরাহ্ণ | 160 বার

কক্সবাজারে ২৬ জনের মনোনয়ন পত্র জমা

কক্সবাজার জেলার চার উপজেলার ৬ ইউনিয়নের উপ-নির্বাচনের মনোনয়পত্র দাখিলের শেষ দিন ছিলো রবিবার ৩০ জুন। যার মধ্যে ৩টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে মোট ১৭ জন মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছেন, ৩টি ইউনিয়নে সাধারণ ও নারী সংরক্ষিত আসনে মোট ৯জন সংগ্রহ করেছেন।

এসব প্রার্থীরা নিজেদের মনোনয়ন পত্র স্ব স্ব উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে সংগ্রহ করেছেন বলে জেলা নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা গেছে।

জেলা নির্বাচন অফিসের তথ্য মতে, চেয়ারম্যান পদে কুতুবদিয়া উপজেলার বড়ঘোপ ইউনিয়ন থেকে মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছেন ৪ জন। এতে আবুল কালাম, রুস্তম আলী, আ.ন.ম শহীদ উদ্দিন চৌধুরী ও তৌহিদুল ইসলাম। টেকনাফের সীমান্তবর্ত্তী হ্নীলা ইউনিয়ন থেকে ৫ জন মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছেন। এতে রাশেদ মোহাম্মদ আলী, জালাল উদ্দিন চৌধুরী, সিরাজুল ইসলাম সিকদার, মোহাম্মদ হারুনর রশিদ ও মীর মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম। অন্যদিকে চকরিয়ার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে ৮ জন মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছেন। এতে পদত্যাগী চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, মঈন উদ্দিন হাসান সাহেদ, মোহাম্মদ ইউসুফ, মোহাম্মদ ইখতিয়ার উদ্দিন, মোহাম্মদ ফরিদুল আলম, রফিকুল আলম, রিদুওয়ানুল হক ও নাজমুল হাসান।
এছাড়াও মহেশখালী শাপলাপুর ইউপির ২নং ওয়ার্ড থেকে নারী সংরক্ষিত আসনে মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছেন ২ জন । এতে মনোয়া কাজল, ছখিনা খাতুন। টেকনাফের সাবরাং ইউপির ১নং ওয়ার্ড থেকে নারী সংরক্ষিত আসনে মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছেন ৩ জন। এতে ছেনু আরা বেগম, আমিনা খাতুন ও শাহেনা বেগম। চকরিয়ার কৈয়ারবিল ইউপির ২নং ওয়ার্ড থেকে সাধারণ সদস্য পদে মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছেন ৪ জন। এতে নুরুল ইসলাম, নাসির উদ্দিন, মনসুর আলম ও মোহাম্মদ ইসলাম।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এসএম শাহদাত হোসেন বলেন, গতকাল ছিলো ৪ উপজেলার প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন। ২ জুলাই প্রার্থীদের মনোয়ন পত্র যাচাই-বাছাই করা হবে।

আগামী ৩০ জুন রবিবার রিটার্নিং অফিসারের নিকট মনোনয়ন পত্র দাখিলের শেষ দিন। ২ জুলাই মঙ্গলবার রিটার্নিং অফিসার কর্তৃক মনোনয়ন পত্র বাছাই ও ৯ জুলাই মঙ্গলবার প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ধার্য করা হয়েছে। ১০ জুলাই প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিক বরাদ্দ দেয়া হবে। ২৫ জুলাই বৃহস্পতিবার ভোট গ্রহণ করা হবে। নির্বাচন কমিশন ঘোষিত উপ-নির্বাচনের তফসিলে এমন তথ্য জানা।

কুতুবদিয়া থেকে স্টাফ রিপোর্টার হাসান কুতুবী জানান, উপজেলা সদর বড়ঘোপ ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন ৪ জন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী। ৩০ জুন রবিবার মনোনয়নপত্র দাখিলকারীগণ হলেন উপজেলা জাতীয় পার্টি ও কুতুবদিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি আ.ন.ম.শহীদ উদ্দিন ছোটন, বর্তমান ভারপ্রাপ্ত ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আ.লীগ মনোনীত আবুল কালাম, যুবলীগ নেতা রুস্তম আলী ও তৌহিদুল ইসলাম খোকন। মনোনয়নপত্র বাছাই ২ জুলাই, প্রার্থীতা প্রত্যাহার ৯ জুলাই ও ভোট গ্রহণ ২৫ জুলাই বলে নিশ্চিত করেন উপজেলা নির্বাচন অফিসার মুহাম্মদ জামশেদুল ইসলাম সিকদার। বর্তমান চেয়ারম্যান জেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধূরী পদত্যাগ করে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হওয়ায় চেয়ারম্যান পদটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। এখানে মোট ভোটার সংখ্যা ১৯ হাজার ২৬৩। তম্মধ্যে পূরুষ-৯ হাজার ৯৬০ ও মহিলা ভোটার ৯ হাজার ৩৫৬ জন। উপজেলা সদর ইউনিয়নের এ নির্বাচন নিয়ে ব্যাপক জল্পনা-কল্পনা চলছে গোটা উপজেলা জুড়ে।

চকরিয়া প্রতিনিধি বাপ্পি শাহরিয়ার জানান, ফাঁশিয়াখালী ইউপি’র চেয়ারম্যান পদ ও কৈয়ারবিল ইউপি’র মেম্বার পদের উপ-নির্বাচনে ১২ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। ৩০জুন সকাল ১০টায় চকরিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে এসে চেয়ারম্যান ও মেম্বার প্রার্থীরা মনোনয়ন জমা দেন। নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও তিনবারের চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, ফাঁসিয়াখালীর জনগণের মনোনীত প্রার্থী বিশিষ্ট সাংবাদিক ও ঠিকাদার মাইন উদ্দিন হাসান শাহেদ, ফাঁশিয়াখালী ইউনিয়ন জামায়াতের সহ-সভাপতি মোহাম্মদ ফরিদুল আলম, মোহাম্মদ ইখতিয়ার উদ্দিন, রফিকুল আলম, নাজমুল হাসান লিটন, রিদুওয়ানুল হক ও মোহাম্মদ ইউসুফ। এছাড়াও কৈয়ারবিল ইউপির’ ৯নং ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য শূন্য হওয়া মেম্বার পদে ৪জন মনোনয়নপত্র জমাদানকারী হলেন, নুরুল ইসলাম, নাছিরউদ্দিন, মনছুর আলম ও মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম। চকরিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন বলেন, আগামী ২৫ জুলাই ফাঁশিয়াখালী ও কৈয়ারবিল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান-মেম্বার পদে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ২জুলাই মনোনয়নপত্র বাছাই, আপিল ৫ জুলাই এবং ৯ জুলাই মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন।

উল্লেখ্য, সদ্য সমাপ্ত চকরিয়া উপজেলা পরিষদের নির্বাচনের অংশ নিতে চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করেন। পরে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদটি শূন্য ঘোষণা করে। ওই চকরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে গিয়াস উদ্দিন নৌকা প্রতীক নিয়ে বিশাল ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হয়। ১৭জুন নির্বাচন কমিশন সারা দেশের ইউনিয়ন পরিষদের শূন্য ইউপির নির্বাচন তফসিল ঘোষণা করে।

দৈনিক দৈনন্দিন এ প্রকাশিত কোন ছবি,সংবাদ,তথ্য,অডিও,ভিডিও কপিরাইট আইনে অনুমতি ব্যতিরেখে ব্যবহার করা যাবে না ।

Copyright @ 2019

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!